কলকাতায় চালু হলো শিশুদের জন্য ট্রাম লাইব্রেরী সার্ভিস, বিশ্বে নজির গড়লো কলকাতা

কলকাতার বুকে এবার চালু হলো ট্রাম লাইব্রেরী। শিশুরা এবার এই ট্রাম লাইব্রেরীতে তাদের পছন্দের বই পড়তে পারবে নির্দ্বিধায়। শিশু দিবসকে আরো আকর্ষণীয় করে তোলার জন্য এই উদ্যোগ গ্রহণ করেছে পশ্চিমবঙ্গ পরিবহন দপ্তর। গত শনিবার ১৪ নভেম্বর এই নতুন সার্ভিস চালু করা হয়েছে।

উত্তর এবং দক্ষিণ কলকাতার রাস্তায় এই ট্রাম চলবে। উত্তরে শ্যামবাজার থেকে এসপ্ল্যানেড এবং দক্ষিণে এসপ্ল্যানেড থেকে গড়িয়াহাট রুটে এই ট্রাম চালানো হবে। প্রতিদিন সকাল থেকে সন্ধ্যা অবধি এই ট্রামের সার্ভিস চালানো হবে। পশ্চিমবঙ্গ ট্রান্সপোর্ট কর্পোরেশনের এমডি রাজানভির সিং কাপুর বললেন,” দ্যা অক্সফোর্ড বুক স্টোর এই বইয়ের কালেকশন আমাদের দিয়েছেন।”

বিশ্বে এই প্রথম কলকাতাতেই এই ট্রাম লাইব্রেরী লঞ্চ করা হলো। এখানে এয়ার কন্ডিশন ট্রামে সম্পূর্ণ লাইব্রেরির পরিবেশ সৃষ্টি করা হয়েছে। অক্সফোর্ড বুক স্টোর এর ডাইরেক্টর ময়না ভগৎ জানিয়েছেন,” আমাদের এই স্টোরে মজাদার নামের এবং সাহিত্যের বই রয়েছে। সমস্ত বয়সের শিশুদের জন্য এই লাইব্রেরীতে বই সাজানো আছে। শুধু বই না, আরো অনেক কিছু এই লাইব্রেরীতে অনুষ্ঠিত হবে। এর মধ্যে অনেক বার্ষিক পরিকল্পিত প্রজেক্ট আছে। এর মধ্যে আছে গল্পপাঠ, নাটক, কবিতা পাঠ, সহ বাচ্চাদের বই লঞ্চ হওয়া। এই সমস্ত কিছুর জন্য এই ট্রাম লাইব্রেরী হয়ে উঠবে বাচ্চাদের স্বর্গ।”

বাচ্চারা বিনা বাধায় এই লাইব্রেরীতে প্রবেশ করতে পারে। তাদেরকে এই লাইব্রেরীতে যেতে গেলে কোনো টাকা দিতে হবে না। যে অভিভাবকরা ট্রামে বাচ্চাকে নিয়ে উঠবেন তাদের ট্রামের সাধারণ ভাড়াই দিতে হবে। এই ট্রামের জন্য আলাদা করে কোনো অতিরিক্ত টাকার টিকিট নেই। প্রসঙ্গত, ২ মাস আগে এই শহরেই প্রথম ট্রাম লাইব্রেরী চালু করা হয়েছিল অনেক বই সহ। তবে এই বইয়ের কালেকশনের সঙ্গে প্রতিযোগিতামূলক পরীক্ষার জন্য প্রয়োজনীয় বইও ছিল। আগে এই উদ্যোগও অত্যন্ত প্রশংসিত হয়েছিল। সেই উদ্যোগেই অনুপ্রাণিত হয়ে এবারে শুধুমাত্র বাচ্চাদের জন্য ট্রাম লাইব্রেরী সার্ভিস শুরু করা হলো।

ভারতের মধ্যে শুধু কলকাতাতেই আপাতত ট্রাম সার্ভিস চলছে। এই শহরে দীর্ঘ ১৪৭ বছর ধরে এই ট্রাম সার্ভিস চালানো হচ্ছে। তারপরে এই লাইব্রেরি সার্ভিস শুরু হওয়ায় ট্রাম আরো ভালো হয়ে উঠবে। এই ট্রাম বাচ্চাদের বই পড়ার মজাদার আর্টওয়ার্ক, স্থানীয় শিল্পীদের হাতে আঁকা ছবি দিয়ে সাজিয়ে তোলা হয়েছে।